ইতিহাস ও ঐতিহ্য

শাওলিন কুংফু : দুনিয়ার সবচেয়ে ভয়ংকর মার্শাল আর্ট

শাওলিন কুংফু

রিয়াজুর রহমান রায়হান : চীন দেশের এক বিখ্যাত জায়গা শাওলি মন্দির। দেড় হাজার বছর ধরে এখানে চর্চা হচ্ছে বিশেষ ধরনের কুংফু। যা শাওলিন কুংফু নামে পরিচিত। শাওলিন কুংফুর মূল ধারনা হলো মানব দেহকে শক্তিশালী ও প্রাণনাশক অস্ত্রে পরিণত করা। ২০০০ সালে শাওলিন মঠের সুউচ্চ কাঠের পেগোডা বিশ্ব ঐহ্যের স্বীকৃতি লাভ করেছে। চীনা গুংফু বা কুংফু শব্দের অর্থ হলো ধর্য ও ...

বিস্তারিত »

পাবনার তাঁড়াশ বিল্ডিং , যার পরতে পরতে ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সৌন্দর্য

পাবনার তাঁড়াশ বিল্ডিং

ম আরিফ আহমেদ সিদ্দিকী: প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন, ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা আর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ আমাদের এই দেশ। সেই ঐতিহ্যের অনন্য নিদর্শন পাবনার তাঁড়াশ বিল্ডিং। প্রাচীন জনপদ পাবনায় এটি নির্মাণ করেছিলেন নামকরা জমিদার রায়বাহাদুর বনমালী রায়। শহরের প্রাণকেন্দ্রে প্রতিষ্ঠিত এই প্রাচীন, সুদৃশ্য ও বিশাল ভবনটি এখনো মাথা উঁচু করে স্পর্ধায় দাঁড়িয়ে আছে তার অক্ষত অবয়ব নিয়ে। আশপাশে ফল ও ফুলের গাছে এটি সৌন্দর্য ...

বিস্তারিত »

ফকির মজনু শাহ : ‌অধ্যাত্মনেতা থেকে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের নেতা

সাধারণের কাছে ফকির মজনু শাহ একজন অধ্যাত্মনেতা

অলাত এহ্সান : সাধারণের কাছে ফকির মজনু শাহ একজন অধ্যাত্মনেতা, কিন্তু তত্কালীন ভারতবর্ষের শাসকদের নথিতে তিনি ‘ডাকাত’, ‘দস্যু’, ‘লুণ্ঠনকারী’, আরবের বেদুঈন গোত্রীয় সদা পরিভ্রাজক এবং অবশ্যই ব্রিটিশবিরোধী ফকির আন্দোলনের নেতা। অভিধার এ বিস্তর ফারাক কেন? তা নিহিত আছে ব্রিটিশ শাসনের সঙ্গে তার ফকিরি মতের বিরোধের ভেতর। এজন্য ফকিরি মত একটু বুঝে নেয়া দরকার। বাহ্যিক অবস্থা দেখে আরবি ‘ফকির’ শব্দটিকে প্রায়ই ...

বিস্তারিত »

বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুতা : ক্রীতদাস সংগ্রহই ছিল যার প্রধান উদ্দেশ্য

বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুতা ছিল এ অঞ্চলের মানুষের কাছে সবচেয়ে আতংকের নাম

এক শতাব্দীরও বেশি সময় বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুতা ছিল এ অঞ্চলের মানুষের কাছে সবচেয়ে আতংকের নাম। কারণ জলদুস্যরা আক্রমণ করে লুটরাজ ও ধ্বংসযজ্ঞের পাশাপাশি হাজার হাজার মানুষকে ক্রীতদাস বানিয়ে প্রেরণ করতো নিজ দেশে। পর্তুগিজ আর ম্রাউক-ইউ রাজ্যের মগ জাতিগোষ্ঠী দ্বারাই বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুতা বেশি ঘটতো। জলদস্যুরা যুদ্ধজাহাজ আর দ্রতগতির নৌকা নিয়ে উপকূলীয় শহর ও গ্রামে এবং গঙ্গাবিধৌত এ বদ্বীপের অনেক শহরে অতর্কিতে হামলা ...

বিস্তারিত »

আসমা বিনতে শিহাব: মরু দাপানো এক নারী শাসক

আসমা বিনতে শিহাব

এম এ মোমেন : ইউরোপ নারী স্বাধীনতা, অধিকার ও নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে যত অহংকারই করুক মধ্যপ্রাচ্যের মরুর রানী আসমা বিনতে শিহাব ইউরোপের অষ্টসহস্র বছর আগে যে ক্ষমতা প্রয়োগ করেছেন তা তখন তাদের নারীরা কল্পনাও করতে পারেনি। ইয়েমেনের আসমা বিনতে শিহাব আল-সালেহি ১০৪৭-৮৭ সাল পর্যন্ত রাজার স্ত্রী রানী হিসেবে নয় বরং ক্ষমতা প্রয়োগের রানী হিসেবে রাজত্ব করেছেন। আর ক্যাস্তিলের রানী ইসাবেলার ...

বিস্তারিত »

মিশরীয় পরাক্রমশালী রানীর সাগরতলে গুপ্ত রাজপ্রাসাদ

মিশরীয় রানীর সাগরতলে গুপ্ত রাজপ্রাসাদ

রিয়াজ মাহবুব: কথিত আছে মিশরীয় রানী ক্লিওপেট্রার সাগরতলে গুপ্ত রাজপ্রাসাদ ছিল। প্রায় ১ হাজার ৪শ বছর পর ভূমধ্যসাগরের গভীরে পাওয়া যায় প্রাসাদের অস্তিত্ব। মাত্র ৩৯ বছরের জীবনে ক্লিওপেট্রা তার সৌন্দর্য, মোহনীয়তা, ক্ষমতা আর প্রচন্ড উচ্চাভিলাষী জীবন যাপন নিয়ে প্রাচীন মিশরের আলোচিত এক নাম ছিল। তাকে সর্বকালের সেরা নারী শাষকদের অন্যতম বলেও দাবী করেন কেউ কেউ। ফলে নারী শাষককে নিয়ে মিথ ...

বিস্তারিত »

হায়া সোফিয়া : তুরস্কের গোয়ার্তুমি নাকি ইসলামের বিজয়

হায়া সোফিয়া

আর. রহমান: তুরস্কের সবচেয়ে বড় শহর ইস্তাম্বুুলে অবস্থিত এক বিখ্যাত স্থাপনা হায়া সোফিয়া। প্রায় এক হাজার বছর হায়া সোফিয়া ছিল পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গীর্জা। এরপর ভবনটি ৫’শ বছর মসজিদ হিসাবেও ব্যবহার হয়েছে। দেড় হাজার বছর পুরনো এই ভবনে আছে বহু ঐতিহাসিক নির্দশন। সে কারণে একে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের তালিকায়। ফলে দীর্ঘদিন ধরেই এটি জাদুঘর হিসাবে সংরক্ষিত ছিল। ...

বিস্তারিত »

দি সিটি অব আটলান্টিস : হারিয়ে যাওয়া এক সভ্যতার আদ্যোপান্ত

দি সিটি অব আটলান্টিস

শাহরিয়ার ওয়াজেদ হা-মীম: আমাদের পৃথিবী হাজার বছরের পুরোনো। দীর্ঘ এই সময়ে অনেক সভ্যতাই পৃথিবীর গতর জুড়ে দাপিয়ে বেড়িয়েছে।কিছু সভ্যতা টিকে আছে কাগজে কলমে ও পুরাকৃতি হিসাবে। আবার কিছু সভ্যতার হদিস আজও মিলেনি ।তার মধ্যে দি সিটি অব আটলান্টিস অন্যতম। অনেকে একে দি লস্ট সিটি অব আটলান্টিস বলেও ডাকে। আটলান্টিস সভ্যতা নিয়ে প্রথমবারের মত কথা বলেছিলেন দার্শনিক প্লেটো। তার ভাষ্যমতে, ‘প্রায় ...

বিস্তারিত »

বাংলাদেশের রিকশা : ঐতিহ্যবাহী ও জনপ্রিয় একটি বাহন

বাংলাদেশের রিকশা

টি. চৌধুরী : সব দেশেই নিজস্ব কিছু ঐতিহ্যবাহী বাহন থাকে। এর মধ্যে দিয়ে একটি দেশের দীর্ঘদিনের বয়ে চলা ঐহিত্য ও আভিজ্যাতের প্রকাশ পায়। স্থানীয়দের মধ্যেও বাহনটি ব্যবহারে থাকে যথেষ্ট আগ্রহ। সেই মানদন্ডে বাংলাদেশের রিকশা অন্যসব বাহন থেকে অনেকটাই এগিয়ে।তিন চাকার এই বাহনে চড়ে প্রতিদিনই জন্ম নেয় অসংখ্যা প্রেমনামা।শুধু কি তাই? রিকশা চালিয়ে কয়েক লক্ষ মানুষের সংসারও চলে। মোদ্দা কথা, বাহনটি ...

বিস্তারিত »

রুয়ান্ডার গণহত্যা : সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ও লাশের মিছিল

রুয়ান্ডার গণহত্যা

আব্দুল্লাহ আল মাদানী :  রুয়ান্ডার গণহত্যা । ১৯৯৪ সালের ৭ এপ্রিল থেকে জুলাইয়ের মাঝামাঝি পর্যন্ত চলে ইতিহাসের নৃশংসতম গণহত্যাটি। মাত্র এক’শ দিনে ৫-৮ লক্ষ রুয়ান্ডান নাগরিককে নির্বিচারে হত্যা করা হয়। হত্যাকান্ডে ব্যবহার করা হয় চাপাতি ও গুলি। এর খবর ও আলোকচিত্র আর্ন্তজাতিক গণমাধ্যমে এলে পুরো পৃথিবীর মানুষ নড়ে চড়ে বসে। নব্বই দশকের বিভীষিকাময় এ ঘটনার ফিরিস্তি জানতে হলে ফিরে তাকাতে ...

বিস্তারিত »