ফ্রিজ কিনতে চান?

তথ্য ও প্রযুক্তি ডেস্ক: 

বাসাবাড়িতে একটি ফ্রিজ থাকা এখন আর বিলাসিতা নয়। প্রয়োজনের তাগিদেই এর ব্যবহার বাড়ছে। ফ্রিজের সহজলভ্যতার কারণে অনেক পচনশীল দ্রব্য সহজেই সংরক্ষন করা যায়। কয়েক’শ বছর আগেও এমনটি কল্পনা করা যেত না। এখনো ফ্রিজ ছাড়া একটি দিনও কল্পনা করা যায় না। তাই নতুন ফ্রিজ বা পুরাতন ফ্রিজকে আপগ্রেড করার সময় কিছু বিষয় নজর দিলে সুতসই ফ্রিজ কেনা সম্ভব।

প্রাথমিক ধারণা
নতুন একটি ফ্রিজ কেনার সময় সময় অবশ্যই এর ধারণ ক্ষমতা সম্পর্ক ভালোভাবে জানতে হবে। কি ধরনেই দ্রবাদি ফ্রিজজাত করতে চান সেসব বিষয়ে নজর দিতে হবে। তবে ফ্রিজ ক্রয় করার আগে এর সাইজ সর্ম্পকে ধারনা নিতে হবে। পাশাপাশি ফ্রিজ রাখার মত ঘরে যথেষ্ট জায়গা রয়েছে কি না সে বিষয়টিও বিবেচনা করতে হবে। যেমন অনেকই ফ্রেন্স ডোর স্টাইলের ফ্রিজ পছন্দ করেন। এসব ফ্রিজ সাধারণত কেবিনেটের মত হয়। তাই ঘরের মধ্যে বড়সড় জায়গা দরকার হয়।

যন্ত্রাংশ সর্ম্পকে ধারনা
ফ্রিজ কেনার আগে পাওয়ার আউটলেটটি সাবধানে পরীক্ষা করে দেখতে হবে। যাতে বাড়ি নিয়ে গেলে সমস্যা না হয়। একটি বিষয় মনে রাখতে হবে, বাসাবাড়ির জন্য ব্যবহারযোগ্য একটি ফ্রিজ কমপক্ষে ১০০ থেকে ২০০ ওয়াট বিদ্যুত খরচ করে। তাই পাওয়ার ক্যাবল দিয়ে যাতে এই পরিমাণ বিদ্যুত সরবরাহ হয় সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়াও বিদ্যুত প্রবাহ যাতে যথাযথ অবস্থায় থাকে তাই ভালো মানের একটি স্টাবিলাইজার ব্যবহার করতে হবে। একই পাওয়ার আউটলেট দিয়ে ফ্রিজ ছাড়া অন্য কোন ডিভাইজ ব্যবহার করা যাবে না। বেশিরভাগ বাসাবাড়িতেই দেখা যায়, ফ্রিজ ও দেয়ালের মধ্যে কোন দূরত্ব থাকে না। এদিকেও নজর দিতে হবে। র্নিদিষ্ট পরিমাণ দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। কারণ ফ্রিজ সঠিক জায়গায় না রাখলে ফ্রিজের কম্প্রেসার ঠিক-ঠাকমত চলবে না।

ধারণ ক্ষমতা সর্ম্পকে ধারনা
ফ্রিজ কেনার অন্যতম উদ্দেশ্য হলো সংক্ষণ করা। তাই এর সংক্ষণের ক্ষমতা সর্ম্পকে জানতে হবে। বর্তমান বাজারে এমন কিছু ফ্রিজ রয়েছে যেসব হিমায়িত পণ্য ছাড়া অন্য পন্য সংরক্ষণ করতে পারে না। তার মানে হচ্ছে মাছ, হাস-মুরগী রাখা যাবে না। তাই ফ্রিজ কেনার আগে এসব বিষয় নিশ্চত হয়ে কেনা ভালো। নচেৎ বিপদে পরতে হবে। একটি ফ্রিজ কেনার সময় এটি ছোট না বড় তার চেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে এর ভিতরের জায়গার উপর। শাকসবজি, মাংস ও নিত্যদিনের সামগ্রী রাখার জন্য আলাদা বক্স রয়েছে কিনা? থাকলেও ব্যবহারে কতটা সহজলভ্য- এসব ভালোভাবে দেখতে হবে।

খুঁটিনাটি
ফ্রিজের রং একটি গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। অনেক সময় ফ্রিজের রং ঘরের ইন্টেরিয়রে প্রভাব ফেলে। সাধ্যের মধ্যে যদি উন্নতমানের ফ্রিজ কেনা সম্ভব হয় তাহলে খেয়াল রাখতে হবে এটি সম্পূর্ণ সুবিধা দিচ্ছে কিনা। যেহেতু একটি স্মার্ট ফ্রিজের অনেক দাম, তাই এটি রক্ষণাবেক্ষণও একটি জরুরী বিষয়। এসব ফ্রিজ যান্ত্রিক ভাবেই নয় সফটওয়ারের মাধ্যমেও নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এছাড়াও রয়েছে হাতের স্পর্শ ছাড়া ফ্রিজের দরজা খোলার ব্যবস্থাও।

দরদাম
ঈদ উল আজহাকে সামনে রেখে সিংগার বাংলাদেশ নিয়ে এসেছে আধুনিক সবধরনের সুযোগ সুবিধা সম্বলিত ফ্রিজ। নির্ধারতি ফ্রিজে স্কেচকার্ডের মাধমে দিচ্ছে সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকার ছাড়। এছাড়াও অন্যান্য সব ফ্রিজে থাকছে ১০০ পারসেন্ট পর্যন্ত অফার । কিস্তিতে নতুন ফ্রিজ কিনতে চাইলে ডাউন পেমেন্ট দিতে হবে মাত্র ৪৫০০ টাকা। এবং পুরনো ফ্রিজ দিয়ে নতুন ফ্রিজ নেওয়ার সুযোগও দিচ্ছে সিংগার বাংলাদেশ।