সাড়ে ৩ লাখ শ্রমিক নেবে জাপান, যাওয়া যাবে বিনা খরচে

বাতিঘর ডেস্ক

একেবারেই বিনা খরচে শ্রমিক হিসেবে পাড়ি জমানো যাবে জাপানে। এবার এ সুযোগটি পাচ্ছে বাংলাদেশের নাগরিকরা।সম্প্রতি জাপানের সঙ্গে জনশক্তি রপ্তানি বিষয়ক একটি চুক্তি সই করেছে বাংলাদেশ।

জাপান তাদের শ্রমের চাহিদা পূরণে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগেরনতুন আইন পাস করে। যার ফলে দেশটিতে ৩ লাখ ৪৫ হাজার শ্রমিক নেয়া হবে। এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বাংলাদেশ থেকেও শ্রমিক নেয়ার চুক্তি সই হয় দু’দেশের সরকারের মধ্যে।

এ বিষয় নিশ্চিত করেছে প্রবাসী কল্যাণ ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

প্রবাসী কল্যাণ ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় আরও জানায়, ‘এই চুক্তির আওতায় দক্ষ শ্রমিক হিসেবে জাপানে বিনা খরচে যাওয়া যাবে। তবে অনুমোদিত সংস্থাগুলো থেকে জাপানি ভাষায় দক্ষতা অর্জনে কিছু পরিমাণ ফি দিতে হবে। পেশার দক্ষতার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার আগ পর্যন্ত কাউকে ভাষা শেখার বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে না।আর পেশাগত দক্ষতা এবং ভাষা শিক্ষা শেষে চূড়ান্ত বাছাই অনুষ্ঠিত হবে জাপান দূতাবাসে। মোট ১৪টি খাতে লোক নেবে জাপান।

কৃষি শ্রমিক, পরিচ্ছন্ন কর্মী, যন্ত্রাংশ তৈরির কারাখানা, ইলেকট্রিক, ইলেক্ট্রনিক্স, জাহাজ শিল্প এবং গাড়ি নির্মান খাতসহ মোট ১৪টি খাতে জনশক্তি রপ্তানির সুযোগ রয়েছে।উল্লেখিত খাতে দক্ষ শ্রমিকরাই কেবল জাপানে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। এছাড়াও সরকার অনুমোদিত প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান থেকে কয়েক মাসের প্রশিক্ষণ নিয়ে দক্ষতার সার্টিফিকেট সংগ্রহ করা যাবে।
তবে, জাপানে যেতে হলে জানতে হবে জাপানি ভাষা। অর্থাৎ জাপানি ভাষায় বলতে, লিখতে ও পড়তে জানতে হবে। দক্ষ শ্রমিক হিসেবে জাপানে যেতে হলে বয়স কোনভাবেই ৩২ বছরের বেশি হওয়া যাবে না।
প্রয়োজনীয় দক্ষতা থাকলে অনুমোদিত প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। প্রবাসী কল্যাণ ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে জাপানে শ্রমিক পাঠিয়ে থাকে বাংলাদেশ জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো বা বিএমইটি।