উম্মে হানি’র কবিতা ‘করোনা যুদ্ধ’

করোনা যুদ্ধ

নিস্তব্ধ এই পৃথিবী,নিস্তব্ধ এই দেশ
আর কত যুদ্ধের পর হবে এই করোনা যুদ্ধের শেষ?

থমকে গেছে মানুষ,থমকে গেছে স্বপ্নগুলো
উড়ছে না আর স্বপ্ন ফানুশ;
করেছে করোনা মানবতাকেও গ্রাস
দেখছি তবে কত অমানুষের বসবাস!

করোনা সেতো মহামারি বেশ
মানুষে মানুষে নেই বাড়াবাড়ি,নেই মারামারি
নেই ঘুরাঘুরির রেশ,
চলছে করোনার সাথে যুদ্ধ
পুরো পৃথিবী যেন স্তব্ধ।
আগের মত নেই চলাচল,নেই কোলাহল,নেই মনোবল
পুরো পৃথিবী নেই আগের মত সচল!

বিদ্যালয়ে নেই শিক্ষার্থী,জনমানবহীন যেন মার্কেট
শূন্য হাহাকার পর্যটন কেন্দ্র, কলেজ ক্যাম্পাস,মাঠ
মনে পরে যাই স্মৃতি হয়ে যাওয়া কলেজ ক্যাম্পাসের আড্ডা
খেলছে না কেউ ক্রিকেট ম্যাচ,
শূন্য কাঁদছে যেন মাঠ টা।

অদৃশ্য এই করোনা বাহিনী
খেলছে দেখো মৃত্যু মৃত্যু খেলা
যুদ্ধে, যুদ্ধে যায় মাস,দিন,বেলা।

এই যুদ্ধের কিছু সৈনিক
করছে যুদ্ধ দিবা,রাত্রি,দৈনিক,
ডাক্তার,পুলিশ, ব্যাংকার, তারাই তো দেশের রত্ন
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে, করছে দেশের যত্ন-
করোনা যুদ্ধে হয়েছে শহীদ অসংখ্য ডাক্তার যোদ্ধা
তাদের প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা।

করোনা যুদ্ধে চলে গেলেন যারা
হয়েছে তাদের শহীদি মৃত্যু
জান্নাতেরই ফুল হয়েছেন তারা।

দেখো,
পৃথিবী আজ হারিয়েছে চিরচেনা রুপ
প্রভুর এক ইশারায় আজ সব নিশ্চুপ।
আরশের মালিক তবে, হয়েছে কি নারাজ?
শুধরাতে হবে তবে আমাদের কাজ?

ভুল থেকে শুদ্ধ হওয়ার করি যদি পণ
করোনা তবে করতে পারে,আত্নসমর্পন।
চলো,অন্যায় সব করি নির্মূল
প্রভুর কাছে চাই ক্ষমা, শুধরে নিয়ে ভুল।